বিশ্ববাণিজ্য

শক্তিশালী ১০ মুদ্রার তালিকায় তলানিতে মার্কিন ডলার?

বিশ্বের যত মুদ্রা আছে তারমধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের ডলারেই সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়ে থাকে। কিন্তু সেই ডলারই জাতিসংঘের স্বীকৃত ১৮০টি মুদ্রার মধ্যে বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী নয়। মার্কিন সাময়িকী ফোর্বসের প্রকাশিত ২০২৪ সালের বিশ্বের সেরা ১০টি মুদ্রার তালিকায় একদম শেষে অবস্থান ডলারের।

ফোর্বসের তালিকায় বিশ্বের শক্তিশালী ১০ মুদ্রা। ছবি: সংগৃহীত

ফোর্বসের তালিকায় বিশ্বের শক্তিশালী ১০ মুদ্রা। ছবি: সংগৃহীত

মুদ্রাকে বিশ্ব বাণিজ্যের প্রাণশক্তি হিসেবে বিবেচনা করা হয়। একটি দেশের অর্থনৈতিক চালিকাশক্তি হলো মুদ্রা। একটি মুদ্রার শক্তি যত বাড়ে, ততটা অর্থনীতিতে আস্থাও বাড়ে। পাশাপাশি বিনিয়োগ আকর্ষণ করে এবং আন্তর্জাতিক অংশীদারিত্ব বাড়ায়।

 
মুদ্রার শক্তি নির্ধারণের জন্য সুদের হার এবং মুদ্রাস্ফীতি থেকে শুরু করে ভূরাজনৈতিক স্থিতিশীলতা এবং চাহিদা ও সরবরাহের বিষয়গুলোও সূক্ষ্মভাবে কাজ করে।
 
 
আন্তর্জাতিকভাবে বহুল ব্যবহার এবং অন্যান্য মুদ্রার তুলনামূলক মানদণ্ড হিসেবে ব্যবহারের জন্য আপাতদৃষ্টিতে অনেকেই মার্কিন মুদ্রা ডলারকে সবচেয়ে শক্তিশালী মুদ্রা হিসেবে ভেবে থাকেন। তবে এই ধারণাটি সঠিক নয়। ফোর্বসের বিশ্লেষণে উঠে এসেছে, আন্তর্জাতিক বাজারে সবচেয়ে শক্তিশালী ১০টি মুদ্রার তালিকায় ডলারের অবস্থান ১০ নম্বরে। ডলারের চেয়েও শক্তিশালী আরও অন্তত ৯টি মুদ্রা রয়েছে। বিশ্বের সেরা মুদ্রা হলো কুয়েতি দিনার। এরপর যথাক্রমে রয়েছে- বাহরাইনি দিনার, ওমানি রিয়াল, জর্ডানিয়ান দিনার, ব্রিটিশ পাউন্ড, জিব্রাল্টার পাউন্ড, ক্যামেন আইল্যান্ড ডলার, সুইস ফ্রাঙ্ক, ইউরো।
  

সবচেয়ে শক্তিশালী ১০ মুদ্রা

 

কুয়েতি দিনার: এক কুয়েতি দিনার ৩ দশমিক ২৬ মার্কিন ডলারের সমান। আর ৩৫৭ টাকায় পাওয়া যায় এক কুয়েতি দিনার।
 
বাহরাইনি দিনার: এক বাহরাইনি দিনার দিয়ে ২ দশমিক ৬৫ ডলার কেনা যায়। অপরদিকে এক বাহরাইনি দিনারে মিলবে ২৯২ টাকা।
 
ওমানি রিয়াল: এক ওমানি রিয়াল ২ দশমিক ৬০ ডলারের সমান। অপরদিকে ২৮৬ টাকায় মিলবে এক ওমানি রিয়াল
 
জর্ডানিয়ান দিনার: এক জর্ডানিয়ান দিনার দিয়ে কেনা যাবে ১ দশমিক ৪১ ডলার। একই দিনারে কেনা যাবে ১৫৫ টাকা।
 
ব্রিটিশ পাউন্ড: এক ব্রিটিশ পাউন্ডে পাওয়া যাবে ১ দশমিক ২৭ ডলার। অপরদিকে এক ব্রিটিশ পাউন্ড দিয়ে কেনা যাবে ১৪০ টাকা।
 
 
জিব্রাল্টার পাউন্ড: এক জিব্রাল্টার পাউন্ড এখন ১ দশমিক ২৮ ডলারের সমান। এক জিব্রাল্টার পাউন্ডে পাওয়া যাবে ১৪০ টাকা।
 
ক্যামেন আইল্যান্ড ডলার: এক ক্যামেন আইল্যান্ড ডলার দিয়ে কেনা যাবে ১ দশমিক ২০ ডলার। অপরদিকে এক ক্যামেন আইল্যান্ড ডলারে মিলবে ১৩২ টাকা।
 
সুইস ফ্রাঙ্ক: ১ দশমিক ১৬ ডলার এক সুইস ফ্রাঙ্কের সমান। এক ফ্রাঙ্ক দিয়ে পাওয়া যাবে ১২৭ টাকা।
 
ইউরো: এক ইউরো দিয়ে মিলবে ১ দশমিক ০৯ ডলার। অপরদিকে ওই ইউরোতে কেনা যাবে ১১৯ দশমিক ১১ টাকা।
 
মার্কিন ডলার: বর্তমান বিশ্বে সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত মুদ্রা মার্কিন ডলার হলো ১০ম শক্তিশালী মুদ্রা। বিশ্বে অন্য সব মুদ্রার দাম ইউএস ডলারের চেয়ে কম। এক মার্কিন ডলার দিয়ে বর্তমানে ১১০ টাকা পাওয়া যায়।
 
সূত্র- এনডিটিভি

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button