চাকরি

বিশ্বের সবচেয়ে বড় অফিস ভবন কোথায় জানেন

বিশ্বের সবচেয়ে বড় অফিস ভবন কোনটি—এ প্রশ্নের উত্তরে যে কেউ বলবে যুক্তরাষ্ট্রের পেন্টাগন। কিন্তু একটি অফিস ভবন এবার পেন্টাগনকেও ছাড়িয়ে যাচ্ছে বলে দাবি করছে ভারত। দেশটির দাবি, গুজরাটের সুরাটে আজ রোববার উদ্বোধন হতে যাচ্ছে বিশ্বের বৃহত্তম অফিস ভবন। সুরাট ডায়মন্ড বোর্স (এসডিবি) নামের এ ভবন উদ্বোধন করবেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

 

গুজরাটের সুরাটে আজ রোববার উদ্বোধন হতে যাচ্ছে বিশ্বের বৃহত্তম এই অফিস ভবন

সুরাট ডায়মন্ড বোর্স হবে আন্তর্জাতিক হীরা ও জুয়েলারি ব্যবসার জন্য বিশ্বের বৃহত্তম এবং সবচেয়ে আধুনিক কেন্দ্র। রুক্ষ ও পোলিশ হীরার পাশাপাশি গয়না ব্যবসার জন্য এটি হবে বৈশ্বিক কেন্দ্র। এই বোর্সে থাকবে আমদানি-রপ্তানির জন্য অত্যাধুনিক কাস্টমস ক্লিয়ারেন্স হাউস, খুচরা জুয়েলারি ব্যবসার জন্য জুয়েলারি মল এবং আন্তর্জাতিক ব্যাংকিং ও নিরাপদ ভল্টের জন্য বিশেষ সুবিধা।

সুরাটের ড্রিম (ডায়মন্ড রিসার্চ অ্যান্ড মার্কেন্টাইল) সিটিতে ৬৬ লাখ বর্গফুট জায়গার ওপর এই ডায়মন্ড বোর্স নির্মিত হয়েছে। দিল্লিভিত্তিক মরফোজেনেসিস এ ভবনের নকশা করেছে। প্রতিষ্ঠানটির একটি নথির তথ্য অনুসারে, এটি বিশ্বের বৃহত্তম অফিস ভবন। যুক্তরাষ্ট্রের পেন্টাগনের চেয়েও বড় এই ভবন। মরফোজেনেসিস গান্ধীনগরের গিফট সিটি ও আহমেদাবাদের জয়দাস করপোরেট পার্কেরও নকশা করেছে।

সুরাট ডায়মন্ড বোর্সে ৩০০ থেকে ৭ হাজার ৫০০ বর্গফুটের প্রায় ৪ হাজার ২০০টি অফিস থাকবে। এতে ৯টি টাওয়ার আছে, প্রতিটিতে গ্রাউন্ড প্লাসসহ ১৫টি ফ্লোর আছে।
ডায়মন্ড-সম্পর্কিত কর্মকাণ্ড ও অবকাঠামো, যেমন রুক্ষ হীরা ও পোলিশ হীরা বিক্রি, হীরা উৎপাদন মেশিনারি, এ–সংক্রান্ত সফটওয়্যার, ডায়মন্ড শংসাপত্রের সংস্থা, ল্যাবে উৎপাদিত হীরা ইত্যাদি এই বোর্সে একই ছাদের নিচে পাওয়া যাবে।

এ ছাড়া সুরাট ডায়মন্ড বোর্সে দেশি ও বিদেশি ক্রেতাদের জন্য হীরার গয়নার ২৭টি খুচরা আউটলেটও খোলা হবে। সর্বোচ্চ নিরাপত্তার জন্য ভবনটির ভেতর ও বাইরে চার হাজারেরও বেশি সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে। সুরাট ডায়মন্ড বোর্সের ব্যবস্থাপনা কমিটির এক সদস্য বলেছেন, এই ভবনের কর্মীদের বায়োমেট্রিক তথ্য নেওয়া হবে। এতে তাঁরা কেবল হাত দেখিয়েই কমপ্লেক্সে ঢুকতে পারবেন।

সুরাট ডায়মন্ড বোর্সে ৩০০ থেকে ৭ হাজার ৫০০ বর্গফুটের প্রায় ৪ হাজার ২০০টি অফিস থাকবে
সুরাট ডায়মন্ড বোর্সে ৩০০ থেকে ৭ হাজার ৫০০ বর্গফুটের প্রায় ৪ হাজার ২০০টি অফিস থাকবেছবি: সুরাট ডায়মন্ড বোর্সের ইনস্টাগ্রাম

সুরাট ডায়মন্ড বোর্সের সাত সদস্যবিশিষ্ট কোর কমিটি আছে। এর চেয়ারম্যান সুরাটের বৃহত্তম ডায়মন্ড ফার্ম কিরণ জেমসের মালিক বল্লভভাই লখানি। অন্যরা হলেন ধনেরা ডায়মন্ডসের মালিক অরবিন্দ ধনেরা, শ্রী রামকৃষ্ণ এক্সপোর্টের গোবিন্দ ধোলাকিয়া, ভেনাস জুয়েলার্সের সেবন্তিভাই শাহ, কাপু জেমসের দিয়ালভাই বাঘানি, ধর্মানন্দন ডায়মন্ডসের লালজি প্যাটেল ও সাভানি ব্রাদার্স ডায়মন্ড ফার্মের মালিক মাথুরভাই সাভানি।

সুরাট ডায়মন্ড বোর্সের সাধারণ কমিটির সদস্য দীনেশ নাভাদিয়া বলেন, ৪ হাজার ২০০টি অফিসের সব কটিই ইতিমধ্যে বিক্রি হয়ে গেছে। এ কমপ্লেক্সে এক লাখেরও বেশি মানুষের সরাসরি কর্মসংস্থান হবে।

৬৬ লাখ বর্গফুট জায়গার ওপর নির্মিত এই ভবন নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ৩ হাজার ২০০ কোটি রুপি
৬৬ লাখ বর্গফুট জায়গার ওপর নির্মিত এই ভবন নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ৩ হাজার ২০০ কোটি রুপিছবি: সুরাট ডায়মন্ড বোর্সের ইনস্টাগ্রাম

সুরাট ডায়মন্ড বোর্সের সূত্র জানিয়েছে, কমপ্লেক্সের জন্য কমিটি রাজ্য সরকারের কাছ থেকে ৬২৭ কোটি রুপিতে জমি কিনেছে। পরে প্রকল্পের নকশা করার জন্য মরফোজেনেসিসকে নিয়োগ করা হয়। নির্মাণের চুক্তি করা হয় আহমেদাবাদভিত্তিক পিএসপি প্রজেক্টসকে। ২০১৭ সালে নির্মাণকাজ শুরু হয়। মাঝে দুটি মহামারির বছর থাকা সত্ত্বেও মাত্র পাঁচ বছরে নির্মাণকাজ শেষ হয়। এই প্রকল্পের মোট ব্যয় ৩ হাজার ২০০ কোটি রুপি।

কোর কমিটির এক সদস্য বলেছেন, কমপ্লেক্সটি ‘পঞ্চতত্ত্ব’ থিমের ওপর ভিত্তি করে তৈরি করা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে প্রকৃতির পাঁচটি উপাদান (বাতাস, জল, আগুন, পৃথিবী ও আকাশ)

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button