student
নিরাপত্তার কারণেই শ্রমিকরা গাড়ি চলাচল বন্ধ রেখেছে বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্লাহ। শুক্রবার (৩ আগস্ট) বিকেলে মহাখালীতে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, এটি কোনো আনুষ্ঠানিক ধর্মঘট নয়। এসময় তিনি ছাত্রদের দাবির সঙ্গে একমত পোষণ করে শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ফিরে যাওয়ার আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, নিরাপত্তা শঙ্কায় বর্তমানে গাড়ি চলাচল বন্ধ রয়েছে। যখনই নিরাপত্তা শঙ্কা থাকবে না তখনই গাড়ি চালু হয়ে যাবে। আমরা কিন্তু নাইটকোচ চালু রেখেছি।

তিনি আরও বলেন, আমরা এখনও সড়ককে পুরোপুরি নিরাপদ দেখতে পাচ্ছি না। আজ এবং আগামীকাল কোনো সমস্যা দেখতে না পেলে দুইদিন পর গাড়ি চালু হয়ে যাবে। এটা আমাদের আনুষ্ঠানিক কোনো কর্মসূচি নয়।

এনায়েত উল্যাহ বলেন, আমরা আইন মেনে চলার জন্য নির্দেশ দিয়েছি। আইন অনুযায়ী দোষীদের যেই শাস্তি হোক আমরা মেনে নেব। নতুন আইনকে আমরা স্বাগত জানাই।

গত ২৯ জুলাই রাজধানীর কুর্মিটোলার বিমানবন্দর সড়কে জাবালে নূর পরিবহনের বাসের চাপায় দুই কলেজ শিক্ষার্থী নিহত হয়। এ ছাড়া আহত হয় বেশ কয়েকজন। নিহত শিক্ষার্থীরা হলো শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের একাদশ শ্রেণির বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রী দিয়া খানম মিম ও দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র আবদুল করিম রাজীব।


এ ঘটনার পর রাজধানীসহ সারা দেশে কোমলমতি শিক্ষার্থীরা রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ করে। তারা নিরাপদ সড়কসহ নয় দফা দাবি তুলে করে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসব দাবি মেনে নিয়ে বাস্তবায়নের আশ্বাস দিয়েছেন। এরই মধ্যে কুর্মিটোলায় নিহতদের প্রত্যেক পরিবারকে ২০ লাখ টাকার অনুদান দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বাসচাপায় সহপাঠীদের মৃত্যুর পর রাস্তায় বিক্ষোভে ফেটে পড়ে শিক্ষার্থীরা। এরপর থেকে ঢাকার অভ্যন্তরীণ সড়কগুলোয় বাস চলাচল একেবারেই কমে যায়। এমনকি আন্তঃজেলা বাস চলাচলও বন্ধ হয়ে যায়। এরপর আজ থেকে পরিবহন মালিক ও শ্রমিকরা সারা দেশে বাস চলাচল বন্ধ রেখেছে।

© Copyright 2014-2018, All Rights Reserved ||| Powered By AnyNews24.Com || Developer By Abir-Group

%d bloggers like this:
www.scriptsell.net