Image result for সেফাত উল্লাহ সেফুদার কর্মকাণ্ডে বিব্রত তার পরিবারও!

সাম্প্রতিক সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক আলোচিত-সমালোচিত একটি নাম সেফাত উল্লাহ ওরফে সেফুদা। ম্ভুতকিমাকার ভঙ্গিতে অদ্ভুত, অশ্লীল আর বেপরোয়া কথাবার্তা ছড়াচ্ছে ভার্চুয়াল জগতে।

ফেসবুক লাইভে সাম্প্রতিক ঘটনা নিয়ে নিয়মিতই কথা বলেন তিনি। তবে তার বক্তব্যের বেশির ভাগ জুড়ে থাকে নামী বা পরিচিত মুখদের উদ্দেশ্য করে আজেবাজে মন্তব্য ও গালিগালাজ। তার আক্রমণ থেকে রেহাই পাননি অনেক শোবিজ তারকা, খোলোয়াড়, রাজনীতিবিদরাও।

অস্ট্রিয়া প্রবাসী এই বাংলাদেশির এমন কর্মকাণ্ডে বিব্রত তার পরিবারও। তার মতো অশালীন বক্তব্য ছড়াচ্ছে আরও অনেকে। পুলিশ বলছে, বিদেশে বসে যারা প্রতিনিয়ত এদেশে বিশৃঙ্খলা ছড়াচ্ছে, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সেফুদা বর্তমানে ইউরোপের দেশ অষ্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনায় অবস্থান করছে। সে তার পরিবার হতে সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন অবস্থায় একাকী বসবাস করছে। তার নামে বিভিন্ন সময়ে আইনশৃঙ্খলা পরিপন্থী কাজের অভিযোগে আদালত কর্তৃক সাজাপ্রাপ্ত হয়ে জেল খেটেছে। অষ্ট্রিয়া বসবাসের জন্য তার কোন বৈধ কাগজপত্র নাই।

Image result for সেফাত উল্লাহ সেফুদার কর্মকাণ্ডে বিব্রত তার পরিবারও!

সেফুদা সম্পর্কে জানার জন্য অষ্ট্রিয়ায় বসবাসরত বাঙালি কমিউনিটির সাথে যোগাযোগ করা হলে প্রবাসীরা বলেন, ১৯৯০ সালে সিফাত উল্লাহ ভিয়েনা আসেন, এখানে সবাইকে ঢাকার গোড়ানের স্থায়ী বাসিন্দা হিসাবে পরিচয় দেয়, মাঝে কিছুদিন শিক্ষকতা করে, শুরু থেকেই তিনি উশৃঙ্খল জীবন যাপন করত, এজন্য তার স্ত্রী সন্তানরা তাকে ত্যাগ করে অন্যত্র বসবাস করছে।

জানা গেছে, সেয়াফেত উল্লাহ ওরফে সেফুদা দিনরাত বিশ্রী অঙ্গভঙ্গিতে আজগুবি, অশ্লীল আর বেপরোয়া কথা বার্তাসম্বিলত ভিডিও ছেড়ে দিচ্ছেন ফেসবুকে।  এই সব লাইভে সিফাত উল্লাহ নিজেকে কবি, সাহিত্যিক, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক, অভিনেতা, জাতিসংঘের প্রতিনিধি রূপে উপস্থাপন করেন, সাথে সাথে নিজেকে একজন ধনাঢ্য ব্যক্তি হিসাবে পরিচয় দেয়। সে তরুণ প্রজন্মকে মদ খাওয়া আহবান জানান এবং নিজে লাইভে এসে মদ পান করে।

খোদ সেপায়েত উল্লাহর পরিবারের বিব্রত তার এমন কর্মকাণ্ডে। সেফায়েতউল্লাহ স্ত্রী জানান, ২৮ বছর আগে দেশ ছাড়েন তিনি; বর্তমানে তিনি মানসিক রোগে আক্রান্ত।

কয়েক মাসে, আসাদ পং-পং নামেও এক মালয়েশিয়া প্রবাসী বাংলাদেই এমন বেপরোয়া ও অশ্লীল ভিডিও ছড়িছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। বাংলাদেশের শীর্ষ রাজনৈতিক ব্যক্তিদের নিয়ে কটুক্তি করায় তাকে গ্রেপ্তার করে মালয়েশিয়া পুলিশ।

বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক বলছেন, দেশের বাইরে বসে যারা দেশ নিয়ে বিরূপ মন্তব্য করছে, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ ধরনের কর্মকাণ্ড রোধে সরকার শিগগিরি ইন্টারনেটে আড়ি পাতার ব্যবস্থা নিতে যাচ্ছে।

© Copyright 2014-2018, All Rights Reserved ||| Powered By AnyNews24.Com || Developer By Abir-Group

%d bloggers like this:
www.scriptsell.net