ধর্ষিত কুকুর হাসপাতালে ভর্তি, অভিযুক্ত গ্রেফতার!
ধর্ষণের সময় কুকুরটিকে উদ্ধার করা হয়

বিকৃত মানসিকতার যেন শেষ নেই। মানুষ ঠিক কতটা বিকৃত রূপ ধারণ করতে পারে এমন প্রশ্নের বোধ হয় সঠিক উত্তর নেই। তবে বিকৃত মনের মানুষের কুকর্ম দেখে মানুষকেই হতবাক হতে হয়।

সম্প্রতি ভারতের কলকাতার লেকটাউনের বিধানপল্লী অঞ্চলে এমন এক বিকৃত মানুষের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। কমলেশ মাহাতো নামের ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে রাস্তা থেকে কুকুর ধরে নিয়ে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ আনা হয়েছে।

রোববার ওই এলাকা দিয়ে হেঁটে যাওয়ার সময় কমলেশ মাহাতোকে রাস্তা থেকে একটি কুকুর ধরে নিয়ে যেতে দেখেন কলকাতা হাইকোর্টের আইনজীবী কৃতিপর্ণা। এতে কমলেশের প্রতি সন্দেহ হয় কৃতিপর্ণার।

পরে কৃতিপর্ণা ও তার কয়েকজন বন্ধু কমলেশের পিছু নিয়ে তার বাড়ির কাছে চলে যায়। তারা কমলেশের বাড়িতে পৌঁছে তারা দেখতে পান সে বাড়ির ভেতরে কুকুরটিকে ধর্ষণের চেষ্টা করছে। কৃতিপর্ণা ও তার বন্ধু বাড়ির মধ্যে ঢুকে কুকুরটিকে উদ্ধার করে।

কৃতিপর্ণা চট্টোপাধ্যায়, তার বন্ধু প্রান্তিক চট্টোপাধ্যায় ও সর্বজিৎ লোধ কুকুরটিকে স্থানীয় বেলগাছিয়া ভেটেরিনারি হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানকার চিকিৎসকরা তার প্রাথমিক চিকিৎসা করেন।

পরে কৃতিপর্ণা ও তার বন্ধুরা কমলেশ মাহাতোর নামে লেকটাউন থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এ ঘটনায় পুলিশ রাতের মধ্যেই অভিযুক্তকে নিজের বাড়ি থেকে মদ্যপ অবস্থায় গ্রেফতার করে।

কৃতিপর্ণা গণমাধ্যমকে জানান, ‘কমলেশের বাড়ি থেকে এর আগেও কুকুরের আর্তনাদ শুনেছে স্থানীয় মানুষ। কমলেশের বউ, ছেলেমেয়ে দেশের বাড়িতে গিয়েছে। সেই সুযোগেই সে কুকুরটিকে বাড়িতে তুলে আনে। পশু চিকিৎসকরা কুকুরটির যৌনাঙ্গে গভীর ক্ষতচিহ্ন পায়। পুলিশ যখন ওকে ধরতে যায় ও নগ্ন অবস্থায় ছিল।এসব মিলিয়ে পুলিশের তদন্ত আরও সহজ হয়ে যায়।

© Copyright 2014-2018, All Rights Reserved ||| Powered By AnyNews24.Com || Developer By Abir-Group

%d bloggers like this:
www.scriptsell.net