আল আকসায় মুসল্লিদের ওপর ইসরাইলি বাহিনীর হামলা

আল আকসা মসজিদ
ছবি: আল জাজিরা

কয়েক ঘণ্টা বন্ধ রাখার পর ইসরাইলি বাহিনী মুসলমানদের প্রথম কেবলা আল আকসা মসজিদের ফটক খুলে দিয়েছে। এ সময়ে দখলদার সেনারা মসজিদের মুসল্লিদের ওপর হামলা চালালে অন্তত ১৫জন আহত হয়েছেন।

শুক্রবার সকালে ইসরাইলি সেনা সদস্যরা মসজিদ কম্পাউন্ডে ঢুকে পড়ে। তারা কাঁদানে গ্যাস ও স্টান গ্রেনেড ছুড়ে নামাজ পড়তে আসা মুসল্লিদের ওপর ঝাপিয়ে পড়ে।

জেরুজালেমের ওয়াকফা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, অন্তত অর্ধশত সেনা মসজিদে ঢুকে নামাজিদের ওপর হামলা চালায়। এ সময়ে তারা ২০জনকে গ্রেফতার করে নিয়ে যায়।

দখলদার সেনাদের হামলায় ১৫ ফিলিস্তিনি আহত হয়েছেন। এরমধ্যে মসজিদের তিন প্রহরী ও পথচারীও রয়েছেন।

এর পর লোহার বেরিকেড দিয়ে আল আকসা মসজিদ বন্ধ করে রাখে ইসরাইলি কর্তৃপক্ষ। তারা নামাজিদের মসজিদে প্রবেশে বাধা দেয়।

মসজিদ কম্পাউন্ড থেকে আল জাজিরার প্রতিবেদক অ্যান্ড্রু সিমোনস বলেন, ইসরাইলি নিরাপত্তা বাহিনী প্রায় পাঁচঘণ্টা বন্ধ রাখে আল আকসা মসজিদ। এসময়ে তারা পুরো মসজিদ ঘিরে রাখে।

মসজিদের তত্ত্বাবধায়করা বলেছেন, সেখানে হামলার ঘটনা ঘটেছে। ইসরাইলি নিরাপত্তা বাহিনী এ হামলা চালিয়েছে। তারা মসজিদ থেকে নামাজিদের বের করে দিতে চাইলে তারা বের হতে অস্বীকার করেন। তখন কাঁদানে গ্যাস ও স্টান গ্রেনেড ছুড়ে তাদের বের করে দিতে চেষ্টা করে।

তত্ত্বাবধায়করা আরও বলেন, ইসরাইলি বাহিনী মসজিদের চারটি ফটক বন্ধ করে দেয়। এতে মসল্লিরা বের হতেও পারছিলেন না, ঢুকতেও পারছিলেন না।

READ  ইসরাইলি সেনারা কেন আত্মহত্যা করছে?

Leave a Reply

%d bloggers like this: