সম্প্রতি সেন্সর বোর্ড থেকে ছাড়পত্র পেয়েছে যৌথ প্রযোজনার ছবি 'নবাব' ও 'বস টু' ছবি দু'টি সেন্সর ছাড়পত্র পাওয়ার আগেই যৌথপ্রযোজনার অনিয়ম বিতর্কে জড়িয়ে যায়। সেন্সর বোর্ডের প্রিভিউ কমিটি 'বস টু' ছবিকে যৌথ প"/>

মান্না বেঁচে থাকলে তোমরা এমন আকাম করতে পারতে না : মালেক আফসারী

সম্প্রতি সেন্সর বোর্ড থেকে ছাড়পত্র পেয়েছে যৌথ প্রযোজনার ছবি ‘নবাব’ ও ‘বস টু’ ছবি দু’টি সেন্সর ছাড়পত্র পাওয়ার আগেই যৌথপ্রযোজনার অনিয়ম বিতর্কে জড়িয়ে যায়। সেন্সর বোর্ডের প্রিভিউ কমিটি ‘বস টু’ ছবিকে যৌথ প্রযোজনার ছবি হিসেবে নাকচ করে দেয়।
এবং নিয়ম অনুযায়ী সেটা বাংলাদেশের নয়, কলকাতার ছবি হিসেবে অভিহিত হয়। শুরু হয় আন্দোলন। চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতি ও শিল্পী সমিতির নেতারা আন্দোলনে নামে। কিন্তু সেন্সর বোর্ডের সিদ্ধান্তের কাছে হার মানে আন্দোলন। মুক্তি পেতে যাচ্ছে ছবি দু’টি।এই সিদ্ধান্তের ফলে চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির নেতারা ক্ষুন্ধ হয়ে ওঠে। কিন্তু নিরুপায় হয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরে গেছে তারা। এদিকে গুণী নির্মাতা মালেক আফসারী নিজের ফেসবুক টাইমলাইনে বলেন, আজ মান্না বেঁচে থাকলে তোমরা এটা করতে পারতে না। ‘
শাকিব খান ঢাকাই চলচ্চিত্র ইন্ডাস্ট্রিতে অপ্রতিদ্বন্দ্বী নাম। যাদের হাত ধরে শাকিবের সূচনা আজ তারাই শাকিবের বিপরীত পক্ষ। এমনটাই কিছুদিন আগে শাকিব জানিয়েছেন। মূলত নায়ক মান্না মারা যাওয়ার ঢাকাই চলচ্চিত্র শিল্প এককেন্দ্রিক হয়ে যায়।

মালেক আফসারী নিজের ফেসবুকে মান্নার সাথে নিজেদের একটি ছবি পোস্ট করে লিখেছেন, ‘আমরাও নেতা ছিলাম। মান্না বেঁচে থাকলে এমন আকাম করতে পারতে না তোমরা। ঈদ বেঁচে দিয়ে শিল্পকলা আমদানি করলা?’
তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে লেখেন, ‘সিনেমা হল বাঁচলে সিনেমা বাঁচবে? কোন সিনেমা? এপারের না ওপারের? আমাদের তো আগেই কবর দিয়েছো। মহা নায়ক মান্না বেঁচে থাকলে আজ এমন করতে পারতে না। তোমাদের মতো ফাউল খেলোয়াড়দের জন্য লাল কার্ড। ‘
মালেক আফসারী নির্মিত অন্তর জ্বালা ছবিটি প্রয়াত অভিনেতা মান্নাকে উৎসর্গ করা হয়েছে।

মান্না বেঁচে থাকলে তোমরা এমন আকাম করতে পারতে না : মালেক আফসারী

সম্প্রতি সেন্সর বোর্ড থেকে ছাড়পত্র পেয়েছে যৌথ প্রযোজনার ছবি ‘নবাব’ ও ‘বস টু’ ছবি দু’টি সেন্সর ছাড়পত্র পাওয়ার আগেই যৌথপ্রযোজনার অনিয়ম বিতর্কে জড়িয়ে যায়। সেন্সর বোর্ডের প্রিভিউ কমিটি ‘বস টু’ ছবিকে যৌথ প্রযোজনার ছবি হিসেবে নাকচ করে দেয়।
এবং নিয়ম অনুযায়ী সেটা বাংলাদেশের নয়, কলকাতার ছবি হিসেবে অভিহিত হয়। শুরু হয় আন্দোলন। চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতি ও শিল্পী সমিতির নেতারা আন্দোলনে নামে। কিন্তু সেন্সর বোর্ডের সিদ্ধান্তের কাছে হার মানে আন্দোলন। মুক্তি পেতে যাচ্ছে ছবি দু’টি।এই সিদ্ধান্তের ফলে চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির নেতারা ক্ষুন্ধ হয়ে ওঠে। কিন্তু নিরুপায় হয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরে গেছে তারা। এদিকে গুণী নির্মাতা মালেক আফসারী নিজের ফেসবুক টাইমলাইনে বলেন, আজ মান্না বেঁচে থাকলে তোমরা এটা করতে পারতে না। ‘
শাকিব খান ঢাকাই চলচ্চিত্র ইন্ডাস্ট্রিতে অপ্রতিদ্বন্দ্বী নাম। যাদের হাত ধরে শাকিবের সূচনা আজ তারাই শাকিবের বিপরীত পক্ষ। এমনটাই কিছুদিন আগে শাকিব জানিয়েছেন। মূলত নায়ক মান্না মারা যাওয়ার ঢাকাই চলচ্চিত্র শিল্প এককেন্দ্রিক হয়ে যায়।

মালেক আফসারী নিজের ফেসবুকে মান্নার সাথে নিজেদের একটি ছবি পোস্ট করে লিখেছেন, ‘আমরাও নেতা ছিলাম। মান্না বেঁচে থাকলে এমন আকাম করতে পারতে না তোমরা। ঈদ বেঁচে দিয়ে শিল্পকলা আমদানি করলা?’
তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে লেখেন, ‘সিনেমা হল বাঁচলে সিনেমা বাঁচবে? কোন সিনেমা? এপারের না ওপারের? আমাদের তো আগেই কবর দিয়েছো। মহা নায়ক মান্না বেঁচে থাকলে আজ এমন করতে পারতে না। তোমাদের মতো ফাউল খেলোয়াড়দের জন্য লাল কার্ড। ‘
মালেক আফসারী নির্মিত অন্তর জ্বালা ছবিটি প্রয়াত অভিনেতা মান্নাকে উৎসর্গ করা হয়েছে।

About the author

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Copyright © 2010-2019