ঈদের তিন সিনেমা রংবাজ, সোনা বন্ধু ও অহংকার

ঈদুল আজহার তিন সিনেমা হতাশ করেছে প্রযোজকদের। শাকিব খান-বুবলির রংবাজ ও অহংকার এবং সোনাবন্ধু সেভাবে দর্শক টানতে পারছে না। অন্যদিকে ছবি মুক্তির এক সপ্তাহ যেতেই পাইরেসির শিকার হয়েছে একটি ছবি। 

রাজধানীর কাকরাইল এলাকা। এখান থেকেই সরবরাহ হয় হলগুলোতে সিনেমা, এখানেই ফিরে আসে প্রযোজকের মুনাফার টাকা। 

ঈদের আগে যেখানে ছিল হল মালিক, বুকিং এজেন্টদের সমাগম, সেই জায়গা এখন ফাঁকা। নেই ডিসট্রিবিউশন ম্যানেজার, ছবির প্রযোজকও আসেন না নিয়মিত। এরই মধ্যে অনলাইনে পাওয়া যাচ্ছে রংবাজ ছবিটি। প্রযোজকরা কথাই বলতে চান না এই ছবির ব্যবসা নিয়ে।

একই চিত্র অহংকার সিনেমার প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানে। নেই সংশ্লিষ্টদের আনাগোনা। কর্নাটকের সিনেমা অটো সংকর ছবির নকল গল্পে নির্মিত অহংকার টানতে পারেনি দর্শকদের। 

আর সোনাবন্ধু ৪৫টি হলে মুক্তির কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত মুক্তি পায় ১৯টি হলে। প্রদর্শক সমিতির নেতা বলছেন ঈদের ছবি হলেও আশানুরুপ ব্যবসা করেনি ছবি তিনটি। দর্শকদের আকৃষ্ট করার মতো তেমন কিছুই নেই ছবিগুলোতে।

অনেকেই প্রশ্ন তুলছেন, পরীক্ষিত কিং খানের সাথে বুবলির রসায়ন দর্শকরা পছন্দ করছেন না বলেই ব্যবসা করতে পারেনি রংবাজ ও অহংকার। কিন্তু হল মালিকদের সভাপতি পোষণ করেন ভিন্নমত। 

ঈদের মৌসুমেই চলচ্চিত্রের কিছুটা ব্যবসা করেন প্রযোজক, পরিবেশক ও হল মালিকেরা। কোরবানি ঈদে ব্যবসা না করার সাথে যুক্ত হয়েছে আগামীতে ভালো ছবি তৈরি না হওয়ার আশঙ্কা, বলছেন সিনেমা পাড়ার মানুষেরা। 

ঈদের তিন সিনেমা রংবাজ, সোনা বন্ধু ও অহংকার

ঈদুল আজহার তিন সিনেমা হতাশ করেছে প্রযোজকদের। শাকিব খান-বুবলির রংবাজ ও অহংকার এবং সোনাবন্ধু সেভাবে দর্শক টানতে পারছে না। অন্যদিকে ছবি মুক্তির এক সপ্তাহ যেতেই পাইরেসির শিকার হয়েছে একটি ছবি। 

রাজধানীর কাকরাইল এলাকা। এখান থেকেই সরবরাহ হয় হলগুলোতে সিনেমা, এখানেই ফিরে আসে প্রযোজকের মুনাফার টাকা। 

ঈদের আগে যেখানে ছিল হল মালিক, বুকিং এজেন্টদের সমাগম, সেই জায়গা এখন ফাঁকা। নেই ডিসট্রিবিউশন ম্যানেজার, ছবির প্রযোজকও আসেন না নিয়মিত। এরই মধ্যে অনলাইনে পাওয়া যাচ্ছে রংবাজ ছবিটি। প্রযোজকরা কথাই বলতে চান না এই ছবির ব্যবসা নিয়ে।

একই চিত্র অহংকার সিনেমার প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানে। নেই সংশ্লিষ্টদের আনাগোনা। কর্নাটকের সিনেমা অটো সংকর ছবির নকল গল্পে নির্মিত অহংকার টানতে পারেনি দর্শকদের। 

আর সোনাবন্ধু ৪৫টি হলে মুক্তির কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত মুক্তি পায় ১৯টি হলে। প্রদর্শক সমিতির নেতা বলছেন ঈদের ছবি হলেও আশানুরুপ ব্যবসা করেনি ছবি তিনটি। দর্শকদের আকৃষ্ট করার মতো তেমন কিছুই নেই ছবিগুলোতে।

অনেকেই প্রশ্ন তুলছেন, পরীক্ষিত কিং খানের সাথে বুবলির রসায়ন দর্শকরা পছন্দ করছেন না বলেই ব্যবসা করতে পারেনি রংবাজ ও অহংকার। কিন্তু হল মালিকদের সভাপতি পোষণ করেন ভিন্নমত। 

ঈদের মৌসুমেই চলচ্চিত্রের কিছুটা ব্যবসা করেন প্রযোজক, পরিবেশক ও হল মালিকেরা। কোরবানি ঈদে ব্যবসা না করার সাথে যুক্ত হয়েছে আগামীতে ভালো ছবি তৈরি না হওয়ার আশঙ্কা, বলছেন সিনেমা পাড়ার মানুষেরা। 

© Copyright 2014-2018, All Rights Reserved ||| Powered By AnyNews24.Com || Developer By Abir-Group

%d bloggers like this:
www.scriptsell.net